“হ্যারি পটার এন্ড দ্যা ডেথলি হলোজ” এর প্রকাশ

১৯৯৩ সালের কথা! একজন নবাগত লেখিকা বই প্রকাশের উদ্দেশ্যে তার পান্ডুলিপি নিয়ে প্রকাশকদের দ্বারে দ্বারে কড়া নাড়েন। কিন্তু কেউই তার বই প্রকাশ করতে রাজি হয়নি সেসময়। সকলেই তার বইয়ের সমালোচনা করেন এবং বলেন, এমন আজগুবি বই পাঠকদের আকৃষ্ট করতে পারবে না। এভাবে একবার কিংবা দুবার না, ১২ বার প্রত্যাখ্যান করা হয় তার সেই পান্ডুলিপি। লেখিকা তখন একদম ভেঙ্গে পড়লেন। সে তার একমাত্র মেয়েকে নিয়ে সরকারি অনুদানে সংসার চালাচ্ছিলেন। কিন্তু হার মানেন নি তিনি।


অবশেষে তিনি তার ১৩ তম প্রচেষ্টাতে সফল হন। ক্রিস্টোফার লিটেল নামের একজন প্রকাশক তার প্রতিভা উপলব্ধি করতে পারেন এবং তার প্রকাশনী “Bloomsbury” থেকে তার বই “Harry Potter and the Philosopher’s Stone” প্রকাশ করার সম্মতি প্রদান করেন। বইটি প্রকাশ পাবার সাথে সাথেই পাঠক সমাজে আলোড়ন সৃষ্ট করে এবং লেখিকা রাতারাতি প্রখ্যাত হয়ে ওঠেন। সে বছরের বেস্ট সেলার ছিল তার এই বইটি। কথা হচ্ছিলো জনপ্রিয় বুক সিরিজ হ্যারি পটারের লেখিকা জে.কে রাওলিং কে নিয়ে। যেই লেখিকা একসময় তার মেয়েকে নিয়ে সরকারী অনুদানকে সম্বল করে বেঁচে ছিলেন, কিন্তু এখন তিনি বিশ্বের প্রথম বিলিওনিয়র লেখিকা।


তার ঘুরে দাঁড়ানোর গল্পটি যেন একদম মিলে যায় তার জনপ্রিয় গল্প “হ্যারি পটার” এর মূল চরত্র হেরির সাথে। এরপর থেকে তাকে আর ঘুরে তাকাকে হয়নি। তার বই একের পর এক রেকর্ড ভেঙ্গেছে। ২০০৭ সালের আজকের দিনে “Bloomsbury” প্রকাশনী থেকে প্রকাশ করা হয় তার হ্যারি পটার সিরিজের সর্বশেষ বই “Harry Potter and the Deathly Hallows”। যেটা প্রকাশের সাথে সাথেই সৃষ্ট করে নতুন আরেকটি রেকর্ড। এটা পৃথিবীর দ্রুততম বিক্রিত বই হিসেবে স্বীকৃতি পায়। প্রথম ২৪ ঘন্টায় শুধুমাত্র ইংল্যান্ডেই বিক্রি হয় প্রায় ২.৬৫ মিলিয়ন কপি আর অ্যামেরিকাতে বিক্রি হয় প্রায় ৮.৩ মিলিয়ন কপি।


সমালোচকদেরও ব্যাপক প্রশংসা কুড়ায় বইটি। এই বইটি প্রায় ৮০ টি ভাষাতে অনুবাদ করা হয়েছে এবং এখন পর্যন্ত প্রায় ৫০০ মিলিয়ন কপি বিক্রয় করা হয়েছে। এই সিরিজের বাকি সকল বইয়ের মত এটার উপরেও চলচিত্র নির্মান করা হয়েছে এবং সেই চলচিত্রটিও অনেক ব্যবসা সফল হয়েছে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin

ইতিহাস, রাজনীতি, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, খেলাধুলা, বিনোদন সহ সমসাময়িক যেকোন বিষয়ে লেখা পাঠাতে পারেন আপনিও

Latest Articles

কনসার্ট ফর বাংলাদেশ: বিশ্বমঞ্চে বাংলাদেশের প্রথম পরিচিতি

একটি দেশের স্বাধীন হবার পিছে কত কত ইতিহাসই না থাকে। সেই দেশের জনগনের আত্মত্যাগ, তাদের সমস্ত প্রতিরোধ, তাদের সমস্ত অর্জন। কোন কোন

Read More

মাইকেল ফেল্পস: সাঁতারের জীবন্ত কিংবদন্তী

DC সুপারহিরো অ্যাকুয়াম্যানকে সবাই কম বেশি চেনে। বাস্তব জগতেও কিন্তু আছেন এমনই এক জলের নিচের সুপার হিরো। কারো কাছে তিনি বাল্টিমোরের বুলেট,

Read More

বাংলা দেশ: জর্জ হ্যারিসনের অমর সৃষ্টি

বাংলাদেশের মানুষের হৃদয়ের খুব গভীর এক অনুভূতি নাম বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ। যার সাথে আর অন্য কোনো অনুভূতির তুলনা চলে না। মুক্তিযুদ্ধের সময় দেশের

Read More

নাসা প্রতিষ্ঠার ইতিকথা

৬২ বছর আগে, ১৯৫৮ সালের ২৯ জুলাই অর্থাৎ আজকের দিনে আমেরিকায় নাসা প্রতিষ্ঠিত হয়। সংস্থাটি বিজ্ঞানের অগ্রযাত্রায় অন্যতম অগ্রপথিক। পৃথিবীতে যতগুলো স্পেস

Read More

Get Chalkboard Contents straight to your email!​